৩৮তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি

85
নতুন নতুন চাকরির পোষ্ট পেতে আমাদের পেজ লাইক ও শেয়ার করে রাখুন
38th BCS Preliminary Preparation

৩৮তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি
.
************৭ মার্চের বঙ্গবন্ধু ভাষণ সম্পর্কিত মূল্যবান তথ্য ******
লেখা : নাঈম আহমেদ
->৭ মার্চ ১৯৭১ রবিবার ছিল ,
->বঙ্গবন্ধু বেলা ৩ তা ১৫ মিনিটে ভাষণ দিতে মঞ্চে উঠেন,৩ টা ২০ মিনিটে ভাষণ শুরু হয়,
-> তোফায়েল আহমেদ উপস্থাপনার দায়িত্বে ছিলেন,.মঞ্চে তাকে বেষ্টন করে ছিলেন তোফায়েল আহমেদ,আব্দুর রাজ্জাক,আফজাল হোসেন ভুলকু, হালিম, বাবুল, বাচ্চু, বাবলা, মধু, সেলিম, দিলু, জয়নাল , মুরাদ, হোসেন, নাজিম, আলিমুদ্দীন, জুডোমনি, আওলাদ, আবু, নেহাল, সেলিম ভূঁইয়া, ইকবাল, ফিরু, জিয়া, পারভেজ রংপুরী ,
->বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চ এর ভাষণ ১৮ মিনিট ০৩ সেকেন্ড স্থায়ী ছিল (১৮-১৯ মিনিট ),১১০৮ শব্দে,
-> বঙ্গবন্ধু আগে আব্দুর রাজ্জাক মঞ্চে ভাষণ দিচ্ছিলেন,বঙ্গবন্ধু ” মাইক দে ” বলার পরে বঙ্গবন্ধু মঞ্চে আসেন,,
->বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চ এর ভাষণ ১২ টি ভাষায় অনুবাদ করা হয় ,তাজউদ্দীন আহমেদ অনুবাদ ও পরিমার্জনা করেন ,
->বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চ এর ভাষণ কে ২৫০০ বছরের ইতিহাসে ৭ টি ভাষণ এর মধ্যে ৬ নং ভাষণ এর মর্যাদা দেওয়া হয় ” jacob F Filed এর লেখা “we shall fight on the beaches -the speeches that inspired history বই
->বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চের ভাষণ লিপিবদ্ধ করা হয় ২০১৩ সালে ১ লা ডিসেম্বর ” jacob F Filed এর লেখা “we shall fight on the beaches -the speeches that inspired history বই এর ২০১ পৃষ্ঠায় ” The Struggle this time is the struggle for independence ” লেখা হয় সেদিনকার ভাষণ ও তার তাৎপর্য
-> বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য (ওয়ার্ল্ডস ডক্যুমেন্টরি হেরিটেজ) হিসেবে ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পেলো ৭ মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণ।
->৩০ অক্টোবর (সোমবার) প্যারিসে ইউনেস্কোর হেডকোয়ার্টারে এ ঘোষণা দেন মহাপরিচালক ইরিনা বোকোভা।
->গত ২৪-২৭ অক্টোবর পর্যন্ত বৈঠক করে ৭ মার্চের ভাষণকে ইউনেস্কো স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় আইএসি কমিটি।
->ইন্টারন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটি ইউনেসকোর মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড (এমওডব্লিউ) কর্মসূচির অধীনে আন্তর্জাতিক তালিকায় (ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টার) মোট ৭৮টি দলিলকে মনোনয়ন দিয়েছে। এ তালিকায় ৪৮ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর সাতই মার্চের ভাষণটিকে স্থান দেওয়া হয়েছে।
-> বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ আন্তর্জাতিক দলিলে অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে তালিকাভুক্ত ঐতিহ্যের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪২৭টিতে।