৩৮তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা প্রস্তুতি

155
নতুন নতুন চাকরির পোষ্ট পেতে আমাদের পেজ লাইক ও শেয়ার করে রাখুন
38th BCS Preliminary Preparation

বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা প্রস্তুতিঃ পর্ব-১

অভিজিৎ বসাক
বিসিএস(প্রশাসন)
৩৩তম বিসিএস

বিসিএস পরীক্ষার প্রথম চ্যালেঞ্জ হলো প্রিলিমিনারি পরীক্ষা। আসলে এটি শুধু প্রথম চ্যালেঞ্জ না, সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জও। কারণ এই প্রথম ধাপেই সবথেকে বেশি প্রার্থী বাদ যায়। প্রিলিমিনারি পরীক্ষার খুটিনাটিসহ প্রত্যেকটি বিষয়কে ধরে ধরে লিখতে গেলে অনেক বড় লেখা হয়ে যাবে। তাই এই ধরণের একটি গাইডলাইন সবাই আশা করলেও,অনলাইন মাধ্যমে এমন বিস্তারিত লেখা পাওয়া যায় না সহজে। এমন একটি লেখার জন্য ইনবক্সে প্রচুর অনুরোধ আসলেও পেশাগত কাজে প্রচুর ব্যস্ত থাকার কারণে এমন একটি লেখা হয়ে উঠছিল না। কিন্তু আমার ইচ্ছা ছিল- একদিনে না পারলেও বিভিন্ন পর্ব করে প্রত্যেকটি বিষয় নিয়ে লিখতে থাকব। শেষ পর্যন্ত ঐ পর্বগুলোকে সাথে নিয়ে এই লিখাটি লিখছি। এখানে আমি প্রিলিমিনারি পরীক্ষার বিভিন্ন খুটিনাটি বিষয় এবং প্রতিটি টপিককে এক এক করে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব।এতবড় পোস্ট একদিনে দেয়া সম্ভব না, তাই ধারাবাহিক আকারে লিখার চেষ্টা করব।

প্রিলিমিনারি পরীক্ষার সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ হলো, আপনাকে কম সময়ের মধ্যে প্রচুর তথ্য মাথায় রাখতে হবে। কিন্তু আপনি যদি একটু টেকনিক অবলম্বন করে, সঠিক পরিকল্পনা করে পড়াশুনা করেন, তাহলে খুব অল্প সময়েই ভাল মার্ক পাওয়া সম্ভব। এজন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন-
• প্রথমে BPSC’র ওয়েবসাইট থেকে প্রিলিমিনারি পরীক্ষার বিস্তারিত সিলেবাসটি ডাউনলোড করে ফেলুন।
• এবার কোন বই থেকে কোন অংশটুকু শিখবেন সিলেবাস দেখে দেখে সেটা মার্ক করে ফেলুন।
• এবার একটি কাগজে ঐ বইগুলোর পৃষ্ঠা নম্বর সহ লিখে ফেলুন।প্রিলি পরীক্ষার জন্য বিস্তারিত নোট করার প্রয়োজন নেই।এতে অনেক সময় নষ্ট হবে।
• এরপর বিগত বছরের প্রশ্নগুলো ভালমতো দেখে নিতে হবে। এতে প্রশ্নের ধরণ সম্পর্কে আপনার ভাল একটি ধারণা তৈরি হয়ে যাবে।
• বিগত বছরের প্রশ্নগুলো লক্ষ্য করলে দেখবেন- কিছু গুরুত্বপূর্ণ ও কমন টপিক থেকে নিয়মিত প্রশ্ন করা হয়। এবার টপিকের গুরুত্ব অনুসারে পুরো সিলেবাসটিকে তিন চারটি ভাগে ভাগ করে ফেলুন।
• প্রথমেই গুরুত্বপূর্ণ ও কমন টপিকগুলো দিয়ে শুরু করবেন। এই টপিকগুলো ভালমত শেষ হলে দ্বিতীয়ভাগের টপিকগুলো পড়া শুরু করবেন। এভাবে ধাপে ধাপে পড়তে হবে।
• হালকাভাবে কোন অনেক টপিক শিখবেন না। কারণ এতে পরীক্ষার হলে গিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্বের মধ্যে পড়তে হয়। তাই অল্প শিখবেন কিন্তু বিস্তারিত ও ভালমতো শিখবেন।
• পড়াশুনা নিয়ে মাথায় চাপ নেবেন না। আপনাকে যেসব বিষয় নিয়ে প্রশ্ন করা হবে তার বেশিরভাগই আপনি স্কুল কলেজ লেভেলে শিখে এসেছেন। এবার শুধু ঝালাই করে নিতে হবে।

আজ এ পর্যন্তই থাক। আগামী লেখায় কোন বইগুলো থেকে পড়লে প্রস্তুতি যথাযথ হবে তা নিয়ে আলোচনা করব। সবাই ভাল থাকবেন।

লেখা বিষয়ে কোন পরামর্শ থাকলে আমার ইনবক্সে যোগাযোগ করতে পারেন। Avizit Basak
“Be not afraid of life. Believe that life is worth living, and your belief will help create the fact.” – William James

বি দ্রঃ লেখাটাতে শুধু আমার নিজের আইডিয়া অনুযায়ী ধারণা দেয়া হয়েছে। আপনি আপনার মত করেও প্রস্তুতি নিতে পারেন। সফল হবার জন্য যে প্রস্তুতি দরকার, সেটা সম্পন্ন করাটাই মুখ্য কাজ।আর ছোটখাটো বা অনিচ্ছাকৃত কোনও ভুল থাকলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন দয়া করে।